অপ্রীতিকর ঘটনার পর ঢামেকের জরুরি বিভাগ বন্ধ


dhaka_medical_college_hospitalঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ডিএমসি) জরুরি বিভাগে মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শহীদুল্লাহ হলের এক ছাত্রলীগ নেতার সমর্থকরা ভাঙচুর চালিয়েছে। জানা গেছে, এ ঘটনার প্রতিবাদে জরুরি বিভাগে সব ধরনের সেবা বন্ধ করে দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, শহীদুল্লাহ হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিরাজের মা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তাকে দেখতে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জসিম ও আশিকুল নামে দুজন হাসপাতালে যান। তারপর তারা হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্টাফদের লিফটে ওঠেন। এ নিয়ে চিকিৎসকদের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়।

একপর্যায় তাদের দুজনকে মারপিট করেন চিকিৎসকরা। এতে জসিমের মাথা ও ঠোট কেটে যায়। পিঠে গুরুতর আঘাত পান আশিকুল। তাদেরকে হাসপাতালের ক্যজ্যুয়াল্টি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, এ ঘটনার জের ধরে দুপুর সোয়া ১টার দিকে মিরাজের সমর্থক শহীদুল্লাহ হলের ২০-২৫ জন ছাত্রলীগ কর্মী লাঠি ও রড নিয়ে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে হামলা চালায়। ৩-৪ মিনিট জরুরি বিভাগের জানালার গ্লাস ভেঙে চলে যায় তারা।

এসময় আতঙ্কে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের স্বজনরা ছোটাছুটি শুরু করেন। এ ঘটনার পর থেকে জরুরি বিভাগে সব ধরনের সেবা বন্ধ করে দেন চিকিৎসকরা। হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক মোজ্জাম্মেল হক জানান, আহত জসিম ও আশিকুলকে হাসপাতালের ক্যজ্যুয়াল্টি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে

(199)