অবৈধ অস্ত্রের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে পাকিস্তানের উদ্যোগ


464d42cd0c57ce221c19ec235455e42b_XLপাকিস্তানে অবৈধ অস্ত্রের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। এ জন্য এরইমধ্যে দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশে অস্ত্রের উৎপাদন, বেচাকেনা, এবং মেরামতের কাজ স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে করার নিয়ম চালু হয়েছে। এছাড়া, অস্ত্র সংক্রান্ত যাবতীয় কাজকর্ম কম্পিউটারাইজড করা হচ্ছে।

আগামী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে পাকিস্তানের লাহোর, রাওয়ালপিন্ডি, ভাওয়ালপুর, ফয়সালাবাদ ও গুজরানওয়ালার মতো বড় শহরগুলোতে এ নিয়ম চালু করা হবে। পাকিস্তানের ন্যাশনাল ডাটাবেইজ অ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন অথরিটি বা নাদ্রা’র সঙ্গে পাঞ্জাবের প্রাদেশিক সরকার একটি চুক্তি করেছে। এ চুক্তি অনুযায়ী অস্ত্র সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য বিশেষ করে অস্ত্রের উৎপাদন, বেচাকেনা, এবং মেরামতের যাবতীয় তথ্য সংরক্ষণ করবে নাদ্রা। একইসঙ্গে স্মার্ট কার্ডও ইস্যু করবে এই সংস্থা।

এ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে পাকিস্তানের সরকারি কর্মকর্তারা নিদ্বিধায় স্বীকার করেছেন যে, দেশে কি পরিমাণে অস্ত্রের লাইসেন্স দেয়া হয় এবং কি পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে তার সঠিক কোনো পরিসংখ্যান সরকারের হাতে নেই। এর মধ্যে সবচেয়ে বিব্রতকর বিষয় হচ্ছে- প্রচুর পরিমাণে অবৈধভাবে অস্ত্রের লাইসেন্স দেয়া এবং দুর্নীতিগ্রস্ত সরকারি কর্মকর্তারা ম্যানুয়ালি এ কাজ করে থাকেন। অবৈধ অস্ত্রের কারণে দেশটির অভ্যন্তরে সন্ত্রাস দানবীয় রূপ ধারণ করেছে তেমনি সরকারও বঞ্চিত হচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে।

(117)