ইতিহাস তারেক রহমানকে ধারণ করবে : মির্জা আলমগীর


mirzafakhrulবিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, স্বাধীনতার ইতিহাস যারা বিকৃতি করেছে তারা অপপ্রচার চালিয়েই যাবে। আর যারা স্বাধীনতা বিনির্মাণ করেছে ইতিহাস তাদেরই ধারণ করবে। অপপ্রচারকারীরা টিকবে না। ইতিহাস তারেক রহমানকেই ধারণ করবে।

 মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল আয়োজিত ‘তারেক রহমান সম্পর্কে ধারাবাহিক মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে’ আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।মির্জা আলমগীর বলেন, যারা তারেক রহমান সম্পর্কে অপপ্রচার চালায়, জিয়াউর রহমান সম্পর্কে মিথ্যাচার করে, খালেদা জিয়া সম্পর্কে কুৎসা রটনা করে তারা মূলত বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে। তারা দেশের জনগণের প্রতিপক্ষ হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করেছে।

 তিনি বলেন, তারেক রহমান যা বলেছেন তা ইতিহাসে সত্য। বই পুস্তক ও তৎকালীন পত্রপত্রিকায় তা লেখা আছে।মির্জা আলমগীর সবাইকে সঠিক সত্য জানতে বই পড়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, তারেক রহমান বই পুস্তক থেকে দলীল দিয়ে কথা বলেছেন। তার বক্তব্যেও যদি ভুল ধরতে হয় তা হলে সমুচিত তথ্য প্রমাণসহ জবাব দিন। কিন্তু তা না করে সংসদে যে ভাষায় কুৎসা রটনা করা হয়েছে তা আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক দেওলিয়াত্বেরই বহিঃপ্রকাশ।

 দেশের অস্তিত্ব আজ হুমকির সম্মুখিন মন্তব্য করে তিনি বলেন, আজকে মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করা হয়েছে, ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে, নির্বাচন কমিশন ক্ষমতাহীন, বিচার ব্যাবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে, প্রশাসনে দলীয়করণ করা হয়েছে, তিস্তায় পানি নেই। এই অবস্থার মধ্যে দিয়ে দেশ চলছে। এ অবস্থা থেকে বের হতে না পারলে দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব টিকিয়ে রাখা যাবে না। আর এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য ছাত্র সমাজকেই এগিয়ে আসতে হবে। সংগঠনকে আরো মজবুত করতে হবে।

 সমাবেশে বিএনপির শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন বলেন, আওয়ামী লীগ তারেক রহমানের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। তাদের এই অপপ্রাচারের জবাব রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমেই দিতে হবে। এই গণবিরোধী অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের বিকল্প নেই।তিনি বলেন, রাজপথের এই আন্দোলনে ছাত্র সমাজকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।

যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যারা অপপ্রচার চালায় তারা অসামাজিক। তাদের কাছ থেকে এর চেয়ে ভালো কিছু আশা করা যায় না। তাদের নিজেদেরই তো কোনো আত্মপরিচয় নেই। তারেক রহমান লন্ডনে বসে যে সব কথা বলেছেন তা ঐতিহাসিক সত্য। তিনি ইতিহাসের বাইরে কিছু বলেননি। ইতিহাসকে তার আপনগতিতে চলতে দিন। মানুষ সত্য জানতে চায়।

 বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বলেন, শুধুমাত্র স্লোগান দিয়ে সবকিছু পরিবর্তন করা যাবে না। মুখে স্লোগান না দিয়ে মাঠ পর্যায়ে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। একজন যোগ্য সংগঠক হিসাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। তাহলে তারা আর তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের সাহস পেতো না।

 তিনি বলেন, আজকে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে কথা বলা হচ্ছে কোথায় থেকে। আওয়ামী লীগ ছলেবলে কৌশলে এমপি হয়ে সংসদে গিয়ে তারা সেখানে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বজলুর রশিদ আবেদের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদ খায়রুল কবির খোকন, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সুলতাল সালাহ উদ্দিন টুকু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিউল বারী বাবু প্রমুখ।

(114)