এখন কোথায় নূর হোসেন?


nur৩০ এপ্রিল সন্ধ্যায় চাষাঢ়া রাইফেল ক্লাবের পর এলাকার আর কোথাও কেউ দেখেননি নূর হোসেনকে। এর পর থেকে নূর হোসেন কোথায়, তা নিয়েই সৃষ্টি হয়েছে রহস্যের। ঘটনার পর এক সপ্তাহ নূর হোসেনকে ধরতে পুলিশের কোনো অভিযান কিংবা দৃশ্যমান তৎপরতা এলাকাবাসী দেখেনি। সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার অনেকের ধারণা, ইয়াসিন মিয়ার মতো নূর হোসেনও সিঙ্গাপুরে পালিয়ে গেছেন। কারও কারও ধারণা, নূর হোসেন ভারতে পালিয়ে গেছেন কুমিল্লা সীমান্ত দিয়ে। ভারতে তার পরিচিত অনেকে আছেন এবং তিনি প্রায়ই ভারত যেতেন।

এক সপ্তাহ পর ৩ মে প্রথম পুলিশ নূর হোসেনের সিদ্ধিরগঞ্জের বাসায় অভিযান চালায়। অভিযানে এজাহারভুক্ত আসামি কাউকে ধরতে না পারলেও পুলিশ নূর হোসেনের বডিগার্ডসহ ১৫ জনকে গ্রেফতার করে। একটি মাইক্রোবাসও জব্দ করে। এলাকাবাসীর কাছে এ অভিযানও আইওয়াশ ছাড়া কিছুই নয়। তাদের বক্তব্য, নূর হোসেন অত্যন্ত ধুরন্ধর। অপহরণে তার ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার করা হলেও সেটি সাত দিন পর তার বাসায় রাখার বিষয়টি রীতিমতো হাস্যকর।

নারায়ণগঞ্জ শহরে নূর হোসেনকে নিয়ে গুঞ্জনের প্রকৃতি কিছুটা আলাদা। শহরে অনেকের ধারণা, নূর হোসেন ঢাকায় কোনো প্রভাবশালী নেতা কিংবা মন্ত্রীর আশ্রয়ে আছেন। কারণ, তার সঙ্গে একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা-মন্ত্রীর ভালো সম্পর্ক ছিল। অনেকের ধারণা, নূর হোসেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হেফাজতেই আছেন। রাজনৈতিক নানা হিসাব-নিকাশ শেষে সময়মতো তাকে সবার সামনে নিয়ে আসা হবে। এতসব প্রশ্নের সঙ্গে এলাকাবাসীর একটাই দাবি, নূর হোসেনকে গ্রেফতার করা হোক। তাকে গ্রেফতার করলে নৃশংস সাত খুনের রহস্যও উদ্ঘাটন হবে।

(179)