খুব শিগগিরই হবে তিস্তার পানির হিস্যা পূরণ


hasanআওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘১০ এপ্রিল ভারত সরকার চিঠি দিয়ে জানিয়েছে খুব শিগগিরই আগের চুক্তি অনুযায়ী তিস্তার পানির হিস্যা পূরণ করা হবে।’

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির গোলটেবিল মিলনায়তনে আওয়ামী হকার্স লীগ আয়োজিত মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘পত্রিকার সংবাদ ও বিএনপির বক্তব্য শুনলে মনে হয় রানাপ্লাজায় ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের জন্য সরকার কিছুই করেনি। তাদের (বিএনপির) কথায় মনে হয় মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশি। অথচ তাদের সময়ে স্পেকট্রাম ভবন ধসে পড়েছিল। সেখানে ভালো কোনো উদ্ধার তৎপরতাও চালানো হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এটা দেশি-বিদেশি একটি চক্রের ষড়যন্ত্র। আমাদের দেশের ১৮ বিলিয়ন ডলারের বেশি তৈরি পোশাক থেকে আসে। বিদেশি ক্রেতারা যাতে আর এদেশের গার্মেন্ট শিল্পে বিনিয়োগ না করে, সেজন্য তারা এ ষড়যন্ত্র করছে। রানাপ্লাজায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য যা করার সব কিছু সরকার করেছে, বিএনপি কিছুই করেনি।’

হাছান মাহমুদ বিদেশিদের আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘রানাপ্লাজার ঘটনার পর আপনারা অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু কিছুই করেননি। তাই সমালোচনা না করে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সহযোগিতা করুন।’

বিএনপির লংমার্চ বিষয়ে হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘তারা রংপুরে লংমার্চের নামে কোটি টাকার পিকনিক করেছে। তাদের এ কর্মসূচি হলো ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার হতাশা থেকে। অথচ বেগম খালেদা জিয়া দুই দশমিক শূন্য পাঁচ ভাগ সময় প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। তিনি তখন ভারতে গিয়ে তিস্তা তো দূরের কথা গঙ্গার পানি চুক্তির কথা বলতেই ভুলে গিয়েছিলেন।’

আলোচনা সভায় সংগঠনের সভাপতি এস এম জাকারিয়া হানিফের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন- সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদ আলী, সিনিয়র সহ-সভাপতি এমএ সাদেক, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক এম এ করিম প্রমুখ।

(106)