ঢাকা থেকে আইএসআইয়ের ‘চর’কে নিয়ে গেল ‘র’


roঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দরে  নিষিদ্ধ ঘোষিত ভারতভিত্তিক সন্ত্রাসী সংগঠন ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের (আইএম) এক সদস্য ধরা পড়েছেন। জিয়াউর রেহমান ওরফে ওয়াকাস নামের ওই ব্যক্তি পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের হয়ে কাজ করছিলেন। টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইন সংস্করণে আজ এই সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।টাইমস অব ইন্ডিয়ার আরো জানাচ্ছে, গ্রেফতারের পর ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইং (র) তাকে ধরে নিয়ে গেছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, ওয়াকাস বাংলাদেশে লুকিয়ে ছিলেন। নেপাল হয়ে পাকিস্তানে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ‘র’-এর জালে বন্দী আটকা পড়লেন এই আইএম সদস্য।

তবে ধরা পড়ার পর ওয়াকাসকে কীভাবে বিমানবন্দর থেকে  বাইরে নিয়ে যাওয়া হলো এবং সেখান থেকে ভারতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে—তা পরিষ্কার নয়।প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, পাসপোর্ট তৈরিতে আইএসআইয়ের সামান্য ভুলের কারণে তাদের দোসর ওয়াকাস ঢাকা বিমানবন্দরে ধরা পড়েন। পরে চলে যান ভারতীয় গোয়েন্দাদের হাতে।টাইমস অব ইন্ডিয়ার ভাষ্যমতে, ওয়াকাস যে বাংলাদেশে রয়েছেন, সে খবর ‘র’ এর কাছে ছিল। কিন্তু তিনি ঠিক কোথায় আছেন, তা তাদের জানা ছিল না।

ভারতীয় পত্রিকাটি জানায়, ওয়াকাসকে একটি পাসপোর্টের ব্যবস্থা করে দিয়েছিল আইএসআই। তিনি বিমানবন্দরেও গিয়েছিলেন। কিন্তু বাংলাদেশের অভিবাসন কর্মকর্তারা দেখতে পান যে পাসপোর্টে এন্টি স্ট্যাম্প নেই। বাংলাদেশী কর্মকর্তারা তাকে গ্রেফতারের উদ্যোগ নেয়। এই বিষয়টি এক ‘র’ কর্মকর্তার নজরে পড়ে। তিনি সঙ্গে সাথে তার  স্মার্টফোনের সাহায্যে ছবিসহ খবরটি তার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানান।

র কর্মকর্তারা ঢাকা বিমানবন্দরে ৬ ফুট লম্বা লোকটির ছবি দেখে উল্লসিত হয়ে ওঠে। পত্রিকাটি জানায়, এরপর র কোনো প্রমাণ না রেখেই তাকে ভারতে নিয়ে যায়। তবে কিভাবে ভারত বাংলাদেশ থেকে তাকে নিয়ে গেল তা টাইমস অব ইন্ডিয়া  জানায়নি।

(120)