তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ে সরকার ব্যর্থ: মির্জা ফখরুল


fakhrulতিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা বাংলাদেশের মানুষের অধিকার— উল্লেখ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেন, সরকার এ হিস্যা আদায়ে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন। বুধবার লংমার্চের দ্বিতীয় দিনে তিস্তার ডালিয়া পয়েন্ট অভিমুখে যাত্রা শুরুর আগে রংপুরের পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে আয়োজিত পথসভায় তিনি এ কথা বলেন।

এ যাত্রা হচ্ছে ন্যায্য হিস্যা পাওয়ার অভিযাত্রা— মন্তব্য করে বিএনপির এ নেতা বলেন, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার মধ্যে দিয়ে এ সমস্যার সমাধান করা হবে।তিস্তার পানি পাওয়া বাংলাদেশের মানুষের আন্তর্জাতিক স্বীকৃত অধিকার, এই পানির ন্যায্য হিস্যার দাবি ভারতের কাছে তুলে ধরতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের যে ন্যায্য পাওনা, তিস্তার ন্যায্য হিস্যা তা পাওয়ার জন্য এ আন্দোলন। অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে এ লংমার্চে অংশ নিয়ে আমাদের দেশের জনগণের যে প্রাণের দাবি, বেঁচে থাকার যে আকুতি সেটাকে আমরা আমাদের দেশের সামনে, সরকরের সামনে, আন্তর্জাতিক মহলের সামনে তুলে ধরতে চাই।’

এ সময় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ভারতের সঙ্গে থাকা অভিন্ন নদীর পানির সমস্যা তুলে ধরার আহবানও জানান তিনি। রংপুর মেডিকেল মোড় হয়ে পাগলাপীর, তারাগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, টেংগনমারী ও জলঢাকা হয়ে ডালিয়া ব্যারেজের সামনে সমাবেশ করে এই লংমার্চ শেষ হবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর উত্তরা থেকে বিএনপি এ লংমার্চ শুরু করে। পথে গাজীপুর, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, গাইবান্ধায় পাঁচটি পথসভা করে রাতে রংপুরে যাত্রা বিরতি দেয়া হয়।

ওইদিন মির্জা ফখরুল বলেন, ‘লংমার্চ সরকার কিংবা ভারতের সরকার ও জনগণের বিরুদ্ধে নয়। আমরা ১৬ কোটি মানুষের জীবন জীবিকার দাবি নিয়ে এ কর্মসূচি পালন করছি।’

এর আগে তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা দাবিতে গত ৯-১১ এপ্রিল গণতান্ত্রিক বাম মোর্চ এবং ১৭-১৯ এপ্রিল বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) তিস্তা অভিমুখে লং মার্চ করে।

(114)