বিএনপি ইতিহাস দখলের চক্রান্ত করছে : ওবায়দুল


 

Obaidul-Kader-morningsunbdযোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি এবং তার দোসররা সরকার বিরোধী আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস দখলের চক্রান্ত করছে। কিন্তু তাদের এই চক্রান্ত বাংলার জনগণ কোনদিনই সফল হতে দেবে না।

বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মুজিবনগর দিবস পালন উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

সংগঠনের সহ-সভাপতি রীনা আমিনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমদু এমপি, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য জনাব আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল বাংলাদেশের প্রথম সরকার গঠিত হয়। ১৭৫৭ সালের পলাশীর আম্রকাননে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত হওয়ার পর ঠিক নদীর এ’পারে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে বাংলার স্বাধীনতা সূর্য পুনরায় উদিত হয় মুজিনব নগর সরকার গঠনের মাধ্যমেই। সেদিন বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র তৈরি করা হয়। ১১ এপ্রিল কর্নেল এম এ জি ওসমানীকে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। ১৯৭১ সালের ১৭এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথ তলার আম্রকাননে বাংলাদেশের প্রথম সরকারের শপথ পাঠ করানো হয়।

তিনি বলেন, ১২ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব পদত্যাগ করার পর আবু সাঈদ চৌধুরীকে রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ করানো হয় এবং তিনি সংসদের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের প্রধান হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে মন্ত্রিসভা গঠনের আহ্বান জানান এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ পাঠ করান। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর তালিকা অনুযায়ী অন্যান্য মন্ত্রীদের শপথ পাঠ করানো হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এই সরকারই ১৯৭২ সালের ১৬ ডিসেম্বর দেশের প্রথম সংবিধান প্রণয়ন করেন এবং সেই সংবিধান অনুযায়ী দেশ পরিচালিত হয়। এই সরকারের আমলেই ১৯৭৩ সালের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সেই নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে পুনরায় সরকার গঠন করে। এই সত্য ইতিহাসকে বাংলার জনগণ কোনদিনই ভুলে যাবে না, ভুলে যেতে পারে না।

(107)