বিমানবন্দর থেকে শুরু হবে লংমার্চ


rizvi_Morningsunbdরাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিএনপির লংমার্চ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা পরিবর্তন করে বিমানবন্দরের গোল চক্করের সামনে থেকে শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কর্মব্যস্ত দিন এবং যানজটের কথা বিবেচনা করে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টায় বিমানবন্দরের গোল চক্করের সামনে থেকে লংমার্চ শুরু হবে বলে জানিয়েছে বিএনপি।

আজ সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এ কথা জানান। আগামীকালের পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে তিস্তা অভিমুখে বিএনপির লংমার্চের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরতেই এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

লংমার্চের জন্য পুলিশের অনুমতি নেওয়া হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, ‘লংমার্চের কর্মসূচি নিয়ে পুলিশের সাথে প্রতিনিয়ত কথা হচ্ছে। আমরা তাদের এ বিষয়ে মৌখিকভাবে জানিয়ে দিয়েছি। এখানে অনুমতি নেওয়ার তো কিছুই নেই। আমাদের কর্মসূচি ঢাকায় নেই, ঢাকার বাইরে সমাবেশ হবে। স্থানীয় নেতারা সেভাবে ব্যবস্থা করবেন।’

লংমার্চ সম্পর্কে তিনি জানান, মঙ্গলবার সকাল ৮টায় লংমার্চ শুরু হবে। বিমানবন্দরের গোলচক্কর পার হয়ে সবাই সেখানে উপস্থিত থাকবেন, সেখানে সব যানবাহনও থাকবে। সেখান থেকেই লংমার্চ শুরু করা হবে। ঢাকার বিমানবন্দর থেকে শুরু হয়ে রংপুর পৌঁছানো পর্যন্ত সাতটি পথসভা অনুষ্ঠিত হবে লংমার্চ।

তিনি জানান, প্রথম দফায় পথসভা কালিয়াকৈরে সকাল সাড়ে ৯টায়, টাঙ্গাইল বাইপাস মোড়ে বেলা সাড়ে ১১টায়, সিরাজগঞ্জের কড্ডার মোড়ে দুপুর সাড়ে ১২টায়, বগুড়া মাটিডালি দুপুর আড়াইটায়, গাইবান্ধা গোবিন্দগঞ্জ বেলা সাড়ে ৩টায় এবং পলাশ বাড়িতে বিকেল সাড়ে ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে।

এরপর লংমার্চ রংপুর বিভাগীয় শহরে পৌছুবে। পরদিন বুধবার তিস্তা ব্যরেজের ডালিয়া অভিমুখে লংমার্চ শুরুর আগে সকাল ৯টায় পথসভা অনুষ্ঠিত হবে। পথসভা শেষে সকাল ১১টায় ডালিয়ায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। রংপুরের পথসভার স্থান পরে জানানো হবে বলেও জানান রিজভী আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘অন্যায়ভাবে ভারত পানি প্রত্যাহর করছে। বিভিন্ন ড্রেনেজ ও চ্যানেলের মাধ্যমে পানি নিয়ে নিচ্ছে। বাংলাদেশে আসতে দিচ্ছে না। এটি জুলুম, এটি অন্যায়। আন্তর্জাতিক রীতিনীতি উপেক্ষা করে অন্যায়ভাবে উজানের দেশ ভারত এটি করছে। এই লংমার্চের বিরুদ্ধে যারা কথা বলছেন তারা জনগণের বিপক্ষেই ভূমিকা পালন করছেন।’

লংমার্চ কর্মসূচি বিএনপির না ১৯ দলের, জোটের শরিকরা এতে অংশগ্রহণ করবে কিনা এমন প্রশ্নের জাবাবে রিজভী বলেন, ‘এটা বিএনপির একার কর্মসূচি হলেও অনেককেই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। যে কেউ এতে অংশগ্রহণ করতে পারে।’

(143)