ভারতে হিজড়ারা পেলেন তৃতীয় লিঙ্গের স্বীকৃতি


2220140415182317

দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর অবশেষে ভারতে তৃতীয় লিঙ্গের স্বীকৃতি পেলেন হিজড়ারা। মঙ্গলবার দেশটির সুপ্রিম কোর্ট হিজড়াদের তৃতীয় লিঙ্গের মর্যাদা দিয়ে এক ঐতিহাসিক রায় দেন। এই রায়ের মধ্য দিয়ে  ভারতে হিজড়ারা সব ধরনের নাগরিক সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন বলে স্বীকৃত হলো। কর্মসংস্থান, স্বাস্থ্য ও শিক্ষাসহ সবক্ষেত্রেই হিজড়াদের অধিকার নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ভারতের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ এই আদালত।    আদালতের নির্দেশনায় বলা হয়, হিজড়াদের ( বৃহন্নলাদের) শিক্ষা,স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থানে সমান অধিকার দিতে হবে। সমাজে তাদের হেনস্থা প্রতিরোধে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে। তাদের সামাজিক ও অর্থনৈতিক সুরক্ষাও নিশ্চিত করতে হবে রাষ্ট্রকে। তারাও অন্যসব নাগরিকের মতো সাংবিধানিক অধিকার ভোগ করতে পারবেন।    এদিকে সুপ্রিম কোর্টের এই ঐতিহাসিক রায়ের পর আদালতের বাইরে উৎসবে মেতে ওঠে হিজড়ারা। তারা নিজেদের মতো করে নেচে-গেয়ে এই স্বীকৃতি উদযাপন করে। এই রায়ের খবরে হিজড়ারা দেশেটির বিভিন্ন রাজ্যে আনন্দ র‌্যালি বের করে।    এর আগে ২০০৯ সালে দিল্লি হাইকোর্ট ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারার বিরুদ্ধে রায় দিয়েছিল। ওই রায়ে বলা হয়েছিল ভারতীয় দন্ডবিধির এই ধারাটি বৈষ্যমূলক এবং মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী। এই ধারায় হিজড়া ও সমকামীদের  যৌন ক্রিয়াকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়।   এদিকে বিশিষ্ট আইনজীবী ও সমাজসেবী সঞ্জীব ভাটনগর টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, এই রায়ের ফলে হিজড়ারা  ভারতে সব ধরণের নাগরিক সুবিধাই সমানভাবে ভোগ করতে পারবেন । এক্ষেত্রে সমাজের মুলধারায় ফিরে তারা রাষ্ট্র ও সমাজে অবদান রাখারও সুযোগ পাবেন।

(75)