‘ম্যাড ম্যাক্স’-কে সামলাতে ক্যাপ্টেন কুলও অসহায়!


04420140508115703

এবারের আইপিএলে আরও একবার ‘ম্যাড ম্যাক্স’-কা- ঘটার পর রহস্য ফাঁস করলেন বাইশ গজে তার এ দিনেরও সঙ্গী ডেভিড মিলার।

মিলার বলেন,‘আমাদের ৭০ বলে ১৩৫ রানের পার্টনারশিপ নিয়ে বেশি কিছু বলার নেই। ক্রিজেও বেশি কিছু বলিনি। নামতেই ও বলল, ‘শোনো, আমি আজও বলকে তাড়া করব।’ ওটাই ওর স্ট্র্যাটেজি। যত পারো জোরে মারো। আমি শুধু দেখে গেলাম।’

ম্যাক্সওয়েলের (৩৮ বলে ৯০) ৬টি চার, ৮টি ছয় ; পাশে মিলার (৩২ বলে ৪৭) অবশ্য শুধুই দর্শক ছিলেন, তা নয়। এমনকি এই দুই ‘এম’-এর আউট হওয়ার পর বেইলি-ও (১৩ বলে ৪০ নটআউট) সেই পরম্পরা বজায় রাখায় বরাবাটি স্টেডিয়ামে চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে পাঞ্জাব তুলে ফেলে টুর্ণামেন্টের পঞ্চম সর্বোচ্চ রান (২৩১-৪)।
তার মধ্যে শেষ ১০ ওভারে ষোলোর বেশি রানরেটে ওঠে ১৬২ রান।

আর ম্যাক্সওয়েল? এখনও পর্যন্ত আইপিএল-সাতে এই অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যানের ৭ ম্যাচে ৪৩৫ রান। গড় ৬২.১৪। স্ট্রাইকরেট ২০৩.২৭। এরপরে ১১.৬ আস্কিংরেটে টার্গেট তাড়া করাটা চেন্নাইয়ের মতো হেভিওয়েট টিমের পক্ষেও যথেষ্ট সমস্যা ছিল। প্রথম ১০ ওভারের বিচারে টিম ধোনি এগিয়ে থাকলেও শেষ ১০ ওভারেই ম্যাচের ভাগ্য নির্ণয় হয়ে যায়।

ধোনির মতো বিশ্বসেরা ফিনিশারের পক্ষেও সম্ভব ছিল না শেষ পাঁচ ওভারে প্রতি ছ’বলে পাঁচটা করে বাউন্ডারি মারা! ২০ ওভার শেষে ১৮৭-৬ স্কোরে থামায় টানা ছ’ম্যাচ পর ফের হারের মুখ দেখতে হল চেন্নাইকে। আগের হারটা পাঞ্জাবের কাছেই।

‘ম্যাড ম্যাক্স’-দের আরও খুশির কারণ, সেই ম্যাচে চেন্নাইয়ের দু’শোর বেশি টার্গেট তাড়া করে পাঞ্জাব জিতলেও এ দিন তার বদলা নিতে পারল না ‘ক্যাপ্টেন কুল’ এর মগজও ।

(141)