লেডি টিউটর প্রতারক’ গ্রেফতার


lady_tutorফেসবুকে তিনি পুলিশের এএসপি! মেডিকেলে গিয়ে বনে যান বিএমএ নেতা। আবার আদালতে তার পরিচয় তিনি বড় অ্যাডভোকেট! তিনি ফয়েজ আলী। বয়স ৩৩।অসহায় মেয়েদের টিউশনি দেয়ার কথা বলে প্রতারণা করে আসছিলেন বহুদিন ধরে। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন ‘বহুরূপী’ এই প্রতারক। গ্রেফতারের পর প্রতারণার কৌশল অকপটে স্বীকার করেন তিনি।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বাবুল আকতার বলেন, “টিউশনির কথা বলে ফয়েজ আলী দীর্ঘদিন ধরে মেয়েদেরকে ‘ব্ল্যাকমেইল’ করে আসছিল। তাদের একটি সংঘবদ্ধ চক্র রয়েছে। চক্রের বাকিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।”

পুলিশ জানায়, ফয়েজ আলীর বাড়ি চন্দনাইশ উপজেলার দক্ষিণ জোয়ারা গ্রামে। ‘লেডি টিউটর আবশ্যক’ এ ধরনের সাইনবোর্ড লাগিয়ে মেয়েদের সঙ্গে যোগাযোগ করত সে। পরে টিউশনিতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে তাদের নগরীর একটি হোটেলে নিয়ে গিয়ে ছবি তুলত ফয়েজ। ছবিগুলোকে পরে এডিট করে ‘আপত্তিকর’ করা হয়। এসব ছবি ফাঁস করার হুমকি দিয়ে টাকাও আদায় করতেন তিনি। নগরীর পাচঁলাইশ হাসপাতালের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

(140)