লোক মরে আমার। নাম আসে আমার।


Shamim-Osmanনারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলামসহ সাতজনকে অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোন না কোন সহযোগিতা ছিল বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমান। শনিবার বেসরকারি ইন্ডিপেডেন্ট টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এমন মন্তব্য করে জানিয়েছেন, ঘটনা ঘটার কয়েক মিনিটের মধ্যেই তা প্রধানমন্ত্রীকে তিনি জানিয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জের কোন ঘটনা ঘটলেই আপনার নাম সামনে চলে আসে? এমন প্রশ্নে শামীম ওসমান বলেন, ঘটনা ভিন্নখাতে নেয়ার জন্য আইভী এমন অভিযোগ করে থাকে।
নজরুল হত্যা, দোষতো আপনার ঘাড়েই আসছে? এই প্রশ্নে শামীম বলেন, মৃত্যুর আগের দিন নজরুল আমার কাছে এসেছিল। জানিয়েছিল আমার জামিনের প্রয়োজন। আমি বারের এক্স প্রেসিডেন্টকে বললাম ওর জামিনের প্রয়োজন। একটু করিয়ে দিয়েন। নজরুলকে বলেছি যাবা যখন বি কেয়ারফুল। সাবধানে যাবা। একসঙ্গে চার পাঁচজন যাবা। আমার একটা কমন সেন্স ছিল চার পাঁচজন হলে কেউ কিছু করবে না। করলেও জানা যাবে কারা করেছে। কেন করেছে। এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা যে বাংলাদেশে ঘটতে পারে। নজরুল তো নজরুলই। সঙ্গে আরও পাঁচটা লোক নাই। নজরুলের পরিবারও জানে কারা ঘটনা ঘটিয়েছে। আমিও জানি।

কারা করিয়েছে প্রতিবেদক এমন প্রশ্ন করলে শামীম ওসমান পাল্টা প্রশ্ন করে বলেন, এ কথা বলার আগে আপনাকে একটি গ্যারান্টি দিতে হবে। আমি কাল বাঁচবোতো? আমি আতঙ্কে না থাকলে কি জিডি করি? আপনার জিডিতো অনেকে বলছেন নাটক করছেন? এই প্রশ্নের জবাবে শামীম বলেন, মনে হতে পারে। লোক মরে আমার। নাম আসে আমার। লোকটা যদি শামীম ওসমানের হয়ে থাকে তাহলে শামীম তার লোক মারবে কেন?

যেহেতু নুর হোসেনের নাম এ ঘটনায় উঠে এসেছে, নুর হোসেনও আপনার শিষ্য? এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কিছু দিন আগে আইভী প্রায় ৩০ কোটি টাকার কাজ দিয়েছে হোসেন সাহেবকে। হোসেন সাহেব। আমি এটি বলছি না যে হোসেন সাহেব ইজ দ্য ক্রিমিনাল। আমি যেটা মনে করি তিনটা ঘটনা ঘটতে পারে। এর একটি হলো পারসনাল এনিমি।
পারসনাল এনিমি থেকে আমি মনে করি না যে দুই গাড়িসহ পাঁচটা মানুষকে নাই করে দিতে পারে। তাহলে কারা? র‌্যাব হোক, পুলিশ হোক, ডিবি হোক বা অন্য কেউ হোক যদি কারও ইনভলবমেন্ট থেকে থাকে তাহলে আমি আপনাকে কনফার্ম করতে পারি যে তাদের উচ্চ লেভেল এটি জানতো।

আপনি কি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার প্রতি ইঙ্গিত করছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে শামীম বলেন, সর্ষের মধ্যে ভূত আছে। কিছু না কিছু সহযোগীতা আছে। বিষয়টা রাষ্ট্রকে জানানো হয়েছে। ইউদিন টেন মিনিটস। প্রতিবেদক প্রশ্ন করেন, মানে আপনি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন? জবাবে শামীম বলেন, সমস্ত কিছু জানিয়েছি।
উল্লেখ্য গত ২৭শে এপ্রিল রোববার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামসহ পাঁচজনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। একই দিন কাছাকাছি সময়ে আদালত থেকে বাড়ি ফেরার পথে আইনজীবী চন্দন সরকার ও তার গাড়িচালককে অপহরণ করা হয়। পরে শীতলক্ষ্যা নদীতে তাদের লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা নূর হোসেন প্রধান আসামি।

(161)