শিগগিরই যাত্রা শুরু হচ্ছে নৌ-পুলিশের


policeনৌ পুলিশ গঠনের কাজ শেষ হয়েছে। শিগগিরই এর কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নৌপথে নিরাপত্তা বিষয়ে এক বৈঠক শেষে নৌমন্ত্রী শাজাহান খান সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, “পুলিশের এই নতুন ইউনিট গঠনের কাজ শেষ হয়েছে।প্রাথমিক পর্যায়ে ৭৩০ জন নৌ-পুলিশকে নিয়ে শুরু হচ্ছে এই পুলিশ বাহিনীর কার্যক্রম। সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। শিগগিরই নৌ পুলিশের কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।”

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।নৌমন্ত্রী বলেন, নৌপথে চাঁদাবাজি রোধে সংশ্লিষ্টদের কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। চাঁদাবাজি করে কোনো সন্ত্রাসী পার পাবে না। চাঁদাবাজরা যে দলেরই হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে নৌ পুলিশ ইউনিট গঠন করার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।নৌ পুলিশের সদস্যরা নদী ও উপকূলীয় এলাকায় নিরাপত্তার বলয় গড়ে তুলবে। তারা কোস্টগার্ডের মতোই নদী ও উপকূলীয় এলাকায় টহল দিবে। নদী এলাকায় কোনো অপরাধ ঘটলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিবে। এমনকি কোনো জাহাজ বা নৌকা ডুবে গেলে উদ্ধার কাজে এগিয়ে আসবে নৌ পুলিশ।

নদী এলাকায় অপরাধে জড়িতদের গ্রেফতার করতে পারবে তারা। এসব ঘটনায় মামলা দায়ের করার ক্ষমতাও থাকবে সংস্থাটির হাতে। তাদের কাছে থাকবে অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র আর স্পিডবোট। নৌ পুলিশ কাজ শুরু করলে ৪ হাজার কিলোমিটার নৌপথ নিরাপত্তার আওতায় চলে আসবে।

(150)