হোয়াইট হাউজের যৌন কেলেঙ্কারি ফাঁস!


bill-clintonফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠল মনিকা-ক্লিনটন যৌন কেলেঙ্কারি। সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রপতি বিল ক্লিনটনের সঙ্গে তাঁর অবৈধ সম্পর্ক নিয়ে এতদিন মুখে কুলুপ এঁটে ছিলেন মনিকা নিউনস্কি। এবার হাটে হাড়ি ভাংলেন। দুই যুগ পরে কেলেঙ্কারি নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। মিডিয়া ডেকে ঘটা করে জানালেন, ‘মুখ বন্ধ রাখার জন্য বিল ক্লিনটন তাঁকে প্রচুর অর্থের প্রলোভন দিয়েছিল৷’

ওই ঘটনার পর চুপ করে থাকায় যথেষ্ট বদনাম হয়েছে তার৷ তাঁর সেই নীল রঙের স্কাটকে ঘিরে যে ‘বদনাম’  সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছিল, তা নিয়ে এবার স্বপক্ষ নিয়ে মন্তব্য করায় ২৪ বছর পর ফের সংবাদ শিরোনামে  চলে এসেছে মনিকা-ক্লিনটন যৌন কেলেঙ্কারি।

মার্কিন প্রশাসনের সর্বোচ্চ কার্যালয় হোয়াইট হাউসের কর্মী ছিলেন মনিকা  লিউনস্কি। তখন তাঁ বয়স ছিল ২০ বছর। আর তাঁর একটি নীল রঙয়ের স্কার্টকে ঘিরে শোরগোল পড়েছিল সারা মার্কিন মুলুকে। রাষ্ট্রপতির ডিএনএ পাওয়া গিয়েছিল মনিকার সেই নীল স্কার্টে। পরে সে আলোচনা ছড়িয়ে পড়ে  বিশ্বজুড়ে। তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বিল ক্লিনটনের সঙ্গে যৌন মিলনে লিপ্ত হওয়ার কথা প্রকাশ হবার পর আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছিলেন সুন্দরী মনিকা।

বেশ কয়েক বছর হোয়াইট হাউসে চাকরি করার পর, ওই ঘটনার জেরে মনিকাকে চাকরি ছাড়তে হয়। অনেক জায়গায় চেষ্টা করেও তিনি কোনও চাকরি জোটাতে পারেননি। সম্প্রতি তিনি আমেরিকার একটি সংবাদপত্রে এক দশক আগের যৌন কেলেঙ্কারি  সম্পর্কে স্বপক্ষে বক্তব্য প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেন। মনিকার বক্তব্য, প্রায় এক দশক আগের সেই ঘটনায় তিনি চুপচাপ ছিলেন। তাঁর সম্পর্কে অনেক গুজবও রটেছে। কিন্তু, চুপ থাকার জন্য তৎকালীন প্রেসিডেন্ট তাকে প্রচুর অর্থের প্রলোভন দিয়েছিলেন। চাকরি হারিয়ে নিজের ভবিষ্যতের কথা ভেবেই সেই প্রস্তাব মেনে নেন মনিকা।

(222)