৪০ কোটি টাকার জমি পাচ্ছে হেফাজত


3020140419125837

শেষ পর্যন্ত সরকারের সঙ্গে অলিখিত সমঝোতায় পৌঁছেছে হেফাজতে ইসলাম। অলিখিত ও অঘোষিত কিছু শর্তে একমত হয়েছে উভয় পক্ষ।

এদিকে সমঝোতার অংশ হিসেবে হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী পরিচালিত হাটহাজারী মাদ্রাসা লিজ পাচ্ছে ৪০ কোটি টাকা মূল্যের তিন একর জমি। তবে বিশাল এই প্রাপ্তির বিনিময়ে হেফাজত নেতারা অঙ্গীকার করেছেন তারা আর বর্তমান সরকারের বিরোধিতা করে কোনো আন্দোলন করবেন না। পাশাপাশি হেফাজত নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী দায়ের হওয়া মামলাগুলোর ব্যাপারে নমনীয় হবে সরকার। উভয় পক্ষের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক রাইজিংবিডিকে বলেন, যে জমি পাওয়ার কথা বলা হচ্ছে তা অনেক আগে থেকেই হাটহাজারী মাদ্রাসার দখলে আছে। সরকারের সঙ্গে সমঝোতার কারণেই এই জমি মাদ্রাসা লিজ পাচ্ছে, তা সঠিক নয়- দাবি করেন তিনি। তবে তিনি স্বীকার করেন, তারা আন্দোলনের কৌশল বদল করছেন মাত্র।

হেফাজতের একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সম্প্রতি শানে রিসালত নামে তিন দিনব্যাপী সম্মেলনের আগেই গোপনে সরকারের সঙ্গে চলমান বিরোধ মিটিয়ে ফেলে তাদের অবস্থান থেকে সরে আসে হেফাজত। তারা এখন শুধু গণজাগরণ মঞ্চের বিরুদ্ধে আন্দোলন করবে। আর এই সমঝোতার অংশ হিসেবে গণজাগরণ মঞ্চের ওপর থেকে সরকার সমর্থন তুলে নেবে। সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, সম্প্রতি (১১-১২ এপ্রিল) লালদীঘি ময়দানে অনুষ্ঠিত শানে রিসালত সম্মেলনে হেফাজতের আমিরের দেওয়া বক্তব্যে এই সমঝোতার প্রতিফলন স্পষ্ট হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে আরো জানা গেছে, হাটহাজারী মাদ্রাসাসংলগ্ন রেলওয়ের প্রায় তিন একর জমি তিন শতাধিক খুঁটি গেড়ে দখলে নিয়েছে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। সেখানে বড় বড় সাইনবোর্ডে লেখা হয়েছে, লিজ সূত্রে এই জমির দখলদার ও মালিক হাটহাজারী বড় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। রেলওয়ে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এই জমির বর্তমান বাজারমূল্য প্রায় ৪০ কোটি টাকা।

আরো জানা গেছে, কয়েক মাস আগে জমিগুলো লিজ নেওয়ার জন্য রেলপথ মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী। সরকারের সঙ্গে বিশেষ সমঝোতার আলোকেই তিনি জমি লিজের আবেদন করেন বলে সূত্রগুলো জানায়। লিজের বিষয়টি ইতিবাচকভাবে এখন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে স্বীকার করেছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা।

এদিকে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে বলেন, আহমদ শফী রেলওয়ের প্রায় তিন একরের মতো জমি ও পুুকুর মাদ্রাসার নামে লিজ পেতে আবেদন করেছেন। তাদের আবেদন এখন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এত পরিমাণ জমি লিজের ব্যাপারে সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্ত প্রয়োজন হবে বলে জানান তিনি।

এ প্রসঙ্গে হেফাজত নেতা মাওলানা আজিজুল হক আরো বলেন, ‘হাটহাজারী মাদ্রাসার নামে রেলওয়ের কিছু জমি লিজ বরাদ্দ হচ্ছে। এই জমি অনেক আগে থেকেই মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের দখলে আছে। এর সঙ্গে সমঝোতার কিছু নেই।  মাদ্রাসার জমির সঙ্গে হেফাজতে ইসলাম বা শাহ আহমদ শফীরও কোনো সম্পর্ক নেই। একটি মহল হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তারা নানাভাবে হেফাজতে ইসলামের বদনাম করছে। এটি তারই অংশ।

তবে হেফাজতে ইসলামের আমির ও হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালক শাহ আহমদ শফী সম্প্রতি রিসালত সম্মেলনে বলেছেন, ‘সরকারের সঙ্গে আমাদের কোনো বিরোধ নেই। হাসিনা, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ আমাদের বন্ধু। আসুন, আমরা সবাই ভালো হয়ে যাই। সবাই মিলে সুন্দর সোনার বাংলা গড়ে তুলি।’

এদিকে হেফাজতের সঙ্গে সরকারের সমঝোতার বিষয়টি এখন চট্টগ্রামে টক অব দ্য সিটি হয়ে উঠেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বাস্তবতার কারণে হেফাজত নিজেদের অবস্থান থেকে সরে গেছে। গত বছরের ৫ মের ঘটনার ব্যাপারে হেফাজত এখন গভীরভাবে অনুতপ্ত। তারা যদি তাদের ভুল শুধরে নিয়ে চলতে চায়, আমরা সেটাকে স্বাগত জানাব।’ সমঝোতার ব্যাপারে সরাসরি কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

(189)